পাঁচ দেশ থেকে আসছে ১২ হাজার টন পেঁয়াজ

70

দৈনিক চট্টগ্রাম ডেস্ক >>>
পেঁয়াজ আমদানির প্রক্রিয়া শুরু করেছেন ব্যবসায়ীরা।  ভারত রফতানি বন্ধের আগেই বিকল্প পাঁচটি দেশ থেকে এ পর্যন্ত ১২ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি নিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।  রফতানি বন্ধের ১১ দিন আগে থেকেই আমদানির এ উদ্যোগ নেন তারা।
জানা গেছে, ভারত যে রফতানি বন্ধ করবে, সে বিষয়টি আঁচ করতে পারেন ব্যবসায়ীরা।  এজন্য আগেভাগেই গত ৩ সেপ্টেম্বর থেকে পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি নিতে শুরু করেন ব্যবসায়ীরা।
চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরের উদ্ভিদ সংঘনিরোধ কেন্দ্র জানায়, গত ৩ সেপ্টেম্বর থেকে আজ মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকাল পর্যন্ত পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি নিয়েছে ২৪টি প্রতিষ্ঠান।  এই পাঁচটি দেশ হলো চীন, মিয়ানমার, পাকিস্তান, মিশর ও তুরস্ক।
কেন্দ্রের উপ-পরিচালক আসাদুজ্জামান বুলবুল জানান, গত ১১ দিন ধরে ব্যবসায়ীরা পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি (আইপি) নেয়ার জন্য আবেদন করেছেন।  আমদানি যাতে দ্রুত হয়, এ জন্য আবেদন করার পর দ্রুতই অনুমতিপত্র দেয়া হচ্ছে।
২৪টি প্রতিষ্ঠানের বাইরে চট্টগ্রামের ট্রেড ইমপ্যাক্স নামের একটি প্রতিষ্ঠান ঢাকার উদ্ভিদ সংঘনিরোধ কেন্দ্র থেকে ২ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি নিয়েছে।  সব মিলিয়ে এ মাসের শেষ থেকে ১২ হাজার টন পেঁয়াজ দেশে আসতে শুরু করবে।
বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন খাতুনগঞ্জের ট্রেড ইমপ্যাক্স প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার ফারুক আহমেদ। তিনি বলেন, অনুমতি নেয়ার এক দিনের মাথায় আজই ঋণপত্র খোলা হচ্ছে। দ্রুতই চালানটি দেশে আনার চেষ্টা চলছে।
বিশ্ববাজারে পর্যাপ্ত পরিমাণ পেঁয়াজের মজুত আছে বলেও জানান খাতুনগঞ্জের ট্রেড ইমপ্যাক্স প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার ফারুক আহমেদ।
এদিকে, ভারত রফতানি বন্ধ করায় গতবছরের মতো লাগামহীন হয়ে উঠতে শুরু করেছে পেঁয়াজের বাজার।  রাতারাতি রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন বাজারে দেশি পেঁয়াজের দাম প্রায় দ্বিগুণ হয়ে গেছে।  দাম আরো বাড়ার শঙ্কায় মানুষও প্রয়োজনের অতিরিক্ত পেঁয়াজ কিনতে শুরু করেছেন।
সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) প্রতিবেশী দেশটির পেঁয়াজ রফতানি বন্ধের খবর প্রকাশিত হলে রাত থেকেই রাজধানীর কোথাও কোথাও এই প্রয়োজনীয় পণ্যটির দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন খুচরা ব্যবসায়ীরা।  আর মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ভোর থেকে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ঢাকা-চট্টগ্রামসহ দেশের পাইকারি বাজারগুলোতেও কয়েক দফায় সব ধরনের পেঁয়াজের দাম বাড়ানো হয় বলে খুচরা ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন।

ডিসি/এসআইকে/এমএসএ