রুহুল সিদ্দিকী পাকিস্তানে, তারিক আহসান পর্তুগালে বাংলাদেশের নতুন দূত

55

দৈনিক চট্টগ্রাম ডেস্ক >>>
পেশাদার দুই কূটনীতিকের মধ্যে পারস্পরিক বদলির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। বর্তমানে পর্তুগালে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রুহুল আলম সিদ্দিকীকে পাকিস্তানে বাংলাদেশের পরবর্তী হাইকমিশনার হিসেবে আর ইসলামাবাদে নিযুক্ত তারিক আহসানকে পর্তুগালে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দ্রুততম সময়ের মধ্যে পাকিস্তানে বাংলাদেশের নতুন দূত হিসেবে যোগ দিতে যাওয়া মিস্টার সিদ্দিকী তার ক্যারিয়ারে বহু গুরুত্বপূর্ণ কূটনৈতিক অ্যাসাইন করেছেন।  বার্লিন, দিল্লি, সিঙ্গাপুর মিশনে কাজ করা ছাড়াও পাকিস্তানের করাচীতে উপ-হাইকমিশনারের দায়িত্ব সফলভাবে সামলে ছিলেন তিনি।
ঢাকায় থাকাকালে দূরপ্রাচ্য ও প্রশান্ত মহাসাগর অনুবিভাগের মহাপরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন।  তার সময়েই চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংয়ের ঐতিহাসিক সফর হয়েছে, যার মধ্য দিয়ে ঢাকা-বেইজিং সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় গেছে।  পররাষ্ট্র ক্যাডারের ১১ ব্যাচের কর্মকর্তা রুহুল আলম সিদ্দিকী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নিয়েছেন।  এছাড়া অস্ট্রেলিয়ার মোনাস ইউনিভার্সিটি থেকে উচ্চতর ডিগ্রি নিয়েছেন তিনি।
এদিকে যুদ্ধাপরাধের বিচার নিয়ে অযাচিত মন্তব্যে ইসলামাদের সঙ্গে সম্পর্ক যখন প্রায় তলানিতে তখন পাকিস্তানে হাই কমিশনার হিসেবে পাঠানো হয় তারকা কূটনীতিক খ্যাত তারিক আহসানকে।  ঐতিহাসিক কারণে বৈরি অবস্থানে থাকা দুই দেশের সম্পর্ক আজকে যে পর্যায়ে রয়েছে তাতে বিসিএস (পররাষ্ট্র ক্যাডার) নবম ব্যাচের ওই কর্মকর্তার ভূমিকা রয়েছে।  মিস্টার আহসান তার বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে রিয়াদ, জাকার্তা, বার্লিন এবং জাতিসংঘের বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনে দায়িত্ব পালন করেছেন।  এছাড়া তিনি শ্রীলঙ্কায় রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।  তার আগে হেড কোয়ার্টারে ইউরোপ এবং আন্তর্জাতিক সংস্থা অনুবিভাগের নেতৃত্বে ছিলেন।
মিস্টার আহসান বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) থেকে বৈদ্যুতিক প্রকৌশল বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন।  এছাড়া তিনি নেদারল্যান্ডসের হেগের ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব সোশ্যাল স্টাডিজ (আইএসএস) থেকে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ও বিকাশ বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিপ্লোমা অর্জন করেন।  তিনি বেসামরিক কর্মচারী হিসেবে বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কোর্সে অংশ নেয়া ছাড়াও নিউইয়র্কের ইউনাইটেড নেশনস ইনস্টিটিউট ফর ট্রেনিং অ্যান্ড রিসার্চ (ইউএনআইটিএআর) এবং সিঙ্গাপুরের নান্যাং পলিটেকনিকে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।  ১৯৯১ থেকে ১৯৯৬ পর্যন্ত বাংলাদেশ টেলিভিশনের সংবাদ উপস্থাপকও ছিলেন তিনি।

ডিসি/এসআইকে/এমএসএ