অনলাইন সংবাদমাধ্যমের নিয়ন্ত্রণ নিলো ভারত

58

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, দৈনিক চট্টগ্রাম >>>
অনলাইন নিউজ পোর্টাল এবং নেটফ্লিক্স, অ্যামাজন প্রাইম ভিডিও ও হটস্টারের মতো কন্টেন্ট সরবরাহকারীদের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের অধীনে নিতে একটি আদেশ জারি করেছে ভারতের সরকার।  প্রেসিডেন্ট রাম নাথ কোবিন্দের স্বাক্ষর করা আদেশটি গত সোমবার জারি করা হয়।  সরকারের এই নতুন নিয়ম ফেসবুক, টুইটার ও ইন্সটাগ্রামের মতো সামাজিক যোগাযোগের প্লাটফর্মের জন্যও প্রযোজ্য হবে।  নতুন এই নিয়মের ফলে অনলাইন প্লাটফর্মে চলচ্চিত্র, অডিও-ভিজ্যুয়াল এবং নিউজ ও সমসাময়িক বিষয়ের ওপর নির্মিত কন্টেন্টগুলো ভারতের মন্ত্রণালয়ের অধীনে আসবে।  বুধবার (১১ নভেম্বর) ভারতীয় সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।
অনলাইন প্লাটফর্মের ডিজিটাল কন্টেন্ট নিয়ন্ত্রণে এতোদিন ভারতে কোনও আইন কিংবা স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা ছিলো না।  প্রিন্ট মিডিয়া দেখভালের দায়িত্ব রয়েছে প্রেস কাউন্সিল অব ইন্ডিয়ার এবং নিউজ চ্যানেলগুলো পর্যবেক্ষণের দায়িত্ব নিউজ ব্রডকাস্টার অ্যাসোসিয়েশনের (এনবিএ)।  বিজ্ঞাপনের জন্য রয়েছে অ্যাডভার্টাংজিং স্টান্ডার্ডস কাউন্সিল এবং চলচ্চিত্র তদারকির জন্য রয়েছে সেন্ট্রাল বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশন (সিবিএফসি)।
 গত মাসে এক পিটিশনের জবাবে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট একটি স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার মাধ্যমে ডিজিটাল প্লাটফর্মগুলোকে ওপর থেকে নিয়ন্ত্রণ করতে সরকারকে নির্দেশ দেয়।  ভারতের শীর্ষ আদালত এই আদেশ তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় এবং ইন্টারনেট ও মোবাইল অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্ডিয়াকে পাঠিয়ে দেয়।
তার আগে পৃথক এক মামলায় ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় ডিজিটাল প্লাটফর্ম নিয়ন্ত্রণের প্রয়োজনের কথা জানিয়ে শীর্ষ আদালতকে এজন্য অ্যামিকাস কিউরি হিসেবে একটি গঠনের অনুরোধ জানায়।
গত বছর ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী প্রকাশ জাভেদাকার বলেন, সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা খর্বের কোনো পদক্ষেপ নেবে না সরকার।  তবে প্রিন্ট, ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া এবং চলচ্চিত্রের মতো ডিজিটাল মাধ্যমগুলোর জন্যও এক ধরনের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করা হবে।

ডিসি/এসআইকে/এমএসএ