খাগড়াছড়িতে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, পুলিশ সদস্য গ্রেফতার

33
গ্রেফতার পুলিশ কনস্টেবল নাজমুল হাসান।

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি, দৈনিক চট্টগ্রাম >>>
পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলায় ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীকে (১১) ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় মো. নাজমুল হাসান (২৩) নামের এক পুলিশ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে দীঘিনালা উপজেলার ভৈরফা অটলটিলা এলাকায় ধর্ষণের এ ঘটনা ঘটে।  রাতেই নাজমুলকে গ্রেফতার করা হয়।  এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় মামলা করেন।  স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ওই ছাত্রীকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।  মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়।
গ্রেফতার নাজমুলের বাড়ি কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলার গোপালনগর গ্রামে।  তিনি দীঘিনালা উপজেলার ভৈরফা অটলটিলা পুলিশ ক্যাম্পে কর্মরত ছিলেন।  ধর্ষণের শিকার ছাত্রী দীঘিনালা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ে।
মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, পুলিশ সদস্য নাজমুল হাসান দীঘিনালা উপজেলার ভৈরফা অটলটিলা পুলিশ ক্যাম্পে কর্মরত।  পুলিশ ক্যাম্পটি ছাত্রীর বাড়ির পাশে হওয়ায় বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসার পথে কনস্টেবল নাজমুলের সঙ্গে ছাত্রীর পরিচয় হয়।  পরিচয়ের সূত্র ধরে সোমবার বিকেলে ওই ছাত্রীকে দেখা করতে বলেন নাজমুল।  দেখা করতে গেলে জনজাগরণ বৌদ্ধবিহারের পাশে ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন নাজমুল।
বিষয়টি দেখতে পেয়ে ঘটনাস্থল ঘিরে ফেলে স্থানীয়রা।  পালানোর চেষ্টা করলে নাজমুলকে ধাওয়া করে আটকের পর অটলটিলা পুলিশ ক্যাম্পের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) সন্তোষ কুমার মজুমদারের কাছে সোপর্দ করা হয়।  পরে দীঘিনালা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উত্তম চন্দ্র দেব গিয়ে তাকে থানায় নিয়ে যান।  মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকালে তাকে আদালতে পাঠানো হয়।
দীঘিনালা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উত্তম চন্দ্র দেব বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় পুলিশ সদস্য নাজমুল হাসানকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।  স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ওই ছাত্রীকে খাগড়াছড়ি জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ডিসি/এসআইকে/এসএইচটি