নারায়ণগঞ্জে ভাঙচুরকারীদের কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে : হানিফ

দৈনিক চট্টগ্রাম ডেস্ক >>>
আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, হেফাজত নামের অপশক্তি দেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করতে চায়।  ধর্মের নাম করে অধর্মের কাজ করা, ভাঙচুর করা বরদাস্ত করা হবে না।  নারায়ণগঞ্জে ভাঙচুরের ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।
বুধবার নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ঘরবাড়ি দোকানপাট, ভাঙচুরের ক্ষতিগ্রস্তদের দেখতে যায় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রতিনিধি দল।  পরে সংবাদ সম্মেলন করে এসব কথা বলেন তিনি।
হেফাজত নেতা মামুনুল হক প্রসঙ্গে হানিফ বলেন, জান্নাত আরা ঝর্ণা মামুনুল হকের বৈধ স্ত্রী হলে রিসোর্টে তার নাম লিখতো, কিন্তু তিনি তার আগের স্ত্রী আমিনা তৈয়্যবাহ নাম লিখছেন।  এমনকি তৈয়্যবাহকে ফোন করে বলেছেন ঝামেলায় পড়ে ঝর্ণাকে স্ত্রী বলেছি সেই রেকর্ডে ফাঁস হয়েছে।  মূলত এরা হলো ধর্ম ব্যবসায়ী, এরা ধর্ম ভীরু নয়।  যারা ধর্মের দোহাই দিয়ে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে।
তিনি বলেন, ইসলাম নামে হেফাজত ছদ্মবেশী রাজনীতি করতে চায়।  এই অপশক্তির সঙ্গে মিলে যারা তাণ্ডব চালিয়েছে, তাদের তালিকা করে খুঁজে বের করে মামলা করা হবে।  যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।
হানিফ বলেন, ধর্ম ব্যবসায়ী মামুনুল হক রিসোর্টে অনৈতিক কাজে করতে এসেছিলেন বলেই সাধারণ মানুষ তাকে ধরেছে।  এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের অফিস, যুবলীগ, ছাত্রলীগ নেতার ঘরবাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে।  সাধারণ মানুষের উপর অত্যাচার নির্যাতন করা হয়েছে, এটা কোনোভাবেই সহনীয় নয়।  দেশবাসী ও আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের নিয়ে এদেরকে জবাব দেয়ার সময় এসে গেছে।
এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের নাম ঠিকানা সংগ্রহ করার জন্য আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের আহ্বান জানান যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।  সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, দফতর সম্পাদক বিল্পব বড়ুয়া, কার্য নিবাহীর সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুসহ স্থানীয় নেতাকর্মী।

ডিসি/এসআইকে/এমএসএ