এক বছর পেছাল টোকিও অলিম্পিকও

82

দৈনিক চট্টগ্রাম ক্রীড়া ডেস্ক >>>
এক বছর পেছালো টোকিও অলিম্পিক। বিশ্বব্যাপি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ক্রমেই বাড়ছিল টোকিও অলিম্পিক পিছিয়ে দেওয়ার চাপ। সিদ্ধান্ত নিতে চার সপ্তাহ সময় নিয়েছিল আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি। তবে প্রবল চাপের মধ্যে এর অনেক আগেই তারা পৌঁছেছে সিদ্ধান্তে। প্রতিকূল পরিস্থিতিতে ২০২০ অলিম্পিক এক বছরের জন্য পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।
আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি গতকাল মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করে। ‘আগামি ২৪ জুলাইয়ে শুরু হওয়ার যে ইভেন্টটি, ২০২১ সালের গ্রীষ্মের আগে সেটি আর হবে না’- আইওসির ঘোষণার খানিক আগে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবেও বিষয়টি জানান। তিনি জানান, ‘আমি আসরটি এক বছরের জন্য পিছিয়ে দেওয়ার প্রস্তাব করেছি এবং আইওসি প্রেসিডেন্ট টমাস বাখ শতভাগ সম্মতি দিয়েছেন’। একই সঙ্গে টোকিও প্যারালিম্পিক গেমসও এক বছরের জন্য পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।
আগামি ২৪ জুলাই থেকে ৯ আগস্ট পর্যন্ত সময়ে হওয়ার কথা ছিল বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রীড়াযজ্ঞের এবারের আসর। তবে বিশ্বজুড়ে কভিড-১৯ রোগের বিস্তারে গত কয়েক দিনে প্রতিযোগিতাটি স্থগিত করার চাপ ক্রমশ বাড়তে থাকে।
গেমসটি এবারের গ্রীষ্মে হলে কানাডা ও অস্ট্রেলিয়া তাদের অ্যাথলেটদের পাঠাবে না বলে জানিয়ে দেয়। সোমবার একই ঘোষণা আসে ব্রিটিশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন থেকেও। গত রবিবার অলিম্পিক কমিটি জানায়, চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে তারা চার সপ্তাহ অপেক্ষা করতে চায়। তবে দুদিনেই পাল্টে গেল প্রেক্ষাপট।
আধুনিক অলিম্পিকের ইতিহাসে এর আগে কখনোই কোনো আসর পেছায়নি। তবে দু’টি বিশ্ব যুদ্ধের কারণে ১৯১৬, ১৯৪০ ও ১৯৪৪ আসর বাতিল হয়েছিল। অবশ্য স্নায়ু যুদ্ধের সময় ১৯৮০ ও ১৯৮৪ সালে মস্কো ও লস অ্যাঞ্জেলসের গ্রীষ্মকালীন আসর বিঘ্ন ঘটেছিল।
টোকিও ২০২০ ও আইওসি যৌথ বিবৃতিতে জানায়, মাঝের সময়ে অলিম্পিক মশাল জাপানেই থাকবে। আর আসর পিছিয়ে গেলেও এর নাম অলিম্পিক ও প্যারালিম্পিক গেমস টোকিও ২০২০’ই থাকবে।
প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাসের আঘাতে বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। পিছিয়ে গেছে আগামি জুন-জুলাইয়ে হওয়ার কথা থাকা ফুটবলের কোপা আমেরিকা ও ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপসহ আরও অনেক আসর।

ডিসি/এসআইকে/এসজেপি